بسم الله الرحمن الرحيم
اللَّهُمَّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَعَلَى آلِ مُحَمَّدٍ
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ ঈদ এ মিলাদুন নবী ﷺ মুবারক Sunni Whatsapp Group Click : আমাদের সুন্নি বাংলা WhatsApp গ্রুপে যুক্ত হোন,আমাদের মুফতি হুজুরগণ আপনার ইসলামিক সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দিবেন ইন শা আল্লাহ,জয়েন করতে ক্লিক করেন Sunni Bangla Whatsapp group আর Dui Bangla facebook group এবং Sunni Bangla facebook group মাসলাক এ আলা হজরত জিন্দাবাদ আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত জিন্দা বাদ ৭৩ফিরকা ১টি হক পথে ।নবিﷺ এর প্রেমই ঈমান।ফরজ সুন্নাত তাসাউফ সূফীবাদ নফল ইবাদতের আরকান আহকাম সমুহ মাস'আলা মাসায়েল ইত্যাদি জানতে পারবেন।নবিﷺ সাহাবাرضي الله عنه ওলি গণের জীবনি ও অমুল্য বাণী জানতে পারবেন।মুসলিম জগতের সকল খবর ও ম্যাগাজিন পাবেন এখানেহাদিস শরীফ, কুর'আন শরীফ , ইজমা কিয়াস সম্বলিত বিশ্লেষণ, বাতিলদের মুখোশ উম্মচন করে প্রমাণ সহ দলীল ভিত্তিক আলোচনা ।জানতে পারবেন হক পথে কারা আর বাতিল পথে কারা জা'আল হক। বাংলাদেশ ও ভারতের সুন্নি আলিমদের বাংলায় নাত গজল ওয়াজ নসিহত অডিও ভিডিও ডাউনলোড করুন এখান থেকে অনলাইনে সুন্নি টিভি Live দেখতে আর রেডিও Live শুনতে পাবেন। প্রচুর সুন্নি বাংলা কিতাব ডাউনলোড করুন এখান থেকে।সুন্নি ইসলামিক কম্পিঊটার এপ্লিকেশন এন্ড্রইড এপ্স পাবেন এখানে। প্রতিদিন ভিজিট করুন প্রতিদিন নতুন বিষয় আপডেট পেতে ।ভিজিট করার জন্য ধন্যবাদ জাজাকাল্লাহু খায়ের ।

মিলাদুন্নাবী উপলক্ষ্য ওহাইব্বা বেদাতীদের কুইজ প্রতিযোগীতা!

মিলাদুন্নাবী উপলক্ষ্য ওহাইব্বা বেদাতীদের কুইজ প্রতিযোগীতা!

মিলাদুন্নাবী উপলক্ষ্য ওহাইব্বা বেদাতীদের কুইজ প্রতিযোগীতা!
============================ 
- ওকে। 
(যে কোন ১০টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে)
- ১০টি নয়, সব কটির উত্তর দেয়ার চেস্টা করবো, ইনশা আল্লাহ।  
প্রশ্নাবলীঃ
====== 
-শুরু করুন। 

প্রশ্নঃ 
রসুল মুহাম্মাদ (ﷺ) জীবদ্দশায় প্রথম কত হিজরীতে তাঁর জন্ম দিবস উৎযাপন করেছেন?
উত্তরঃ 
হিজরীর হিসাব করার প্রয়োজন নেই। প্রতি সোমবার তিনি তাঁর জন্ম দিবস রোযা রাখার মাধ্যমে উদযাপন করেছেন। 
সহীহ হাদীস। 

প্রশ্নঃ
 তাঁর মৃত্যুর বছর তাঁর সর্বশেষ মিলাদুন্নাবী উৎযাপন কোন শহরে উৎযাপিত হয়েছিলো? তাতে কতজন সাহাবী উপস্থিত ছিলেন?
উত্তরঃ  
রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সালামের ইনতেকালের বছর যে সপ্তাহে তিনি ইনতেকাল করেছিলেন, তাঁর আগের সপ্তাহে মদীনা মুনাওওয়ারাতে হয়েছিল। সাহাবী কতজন ছিলেন, তা জানা যায় নি। ওনেক তো হবেনই। কারণ রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের পাশে সবসময় সাহাবায়ে কেরাম থাকতেন।     

প্রশ্নঃ
 রসুল (ﷺ) এর জন্মদিন উপলক্ষে ৪ জন প্রসিদ্ধ সাহাবীসহ অন্যান্য সাহাবীগণ কি ধরনের উৎসব পালন করতেন? 
উত্তরঃ 
আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা, আব্বাস রাদিয়াল্লাহ আনহুমা, আবু বকর রাদিয়াল্লাহু আনহু, হাসসান বিন সাবিত রাদিয়াল্লাহু আনহু প্রমূখ। তারা রাসুল সালাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের পবিত্র জন্ম মুবারকের আলোচনা করতেন। 
মাজমাউয যাওয়াইদ, আল মুসতাদরাক আলাস সাহীহাইন। 

প্রশ্নঃ
 তাঁর জন্মদিবস উৎযাপনের হাদীস সমূহ বর্ননা করেছেন যে সকল সাহাবীগণ তাদের সবার নাম লিখুন!
উত্তরঃ 
খুরাইম বিন আওস বিন হারিছাহ, আবু কাতাদাহ আল আনসারী, ইরবাদ বিন ছারিয়াহ প্রমূখ।       

প্রশ্নঃ
 প্রসিদ্ধ কয়েকজন তাবেঈ ও তাবে-তাবেঈ এর নাম লিখুন,যারা মিলাদুন্নবী উৎযাপন করতে না পারলে ঘুমাতে পারতেন না।
উত্তরঃ 
ঘুমাতে পারতেন না, এমন তাবিয়ী কিংবা তাবে তাবেয়ী কেউ ছিলেন কি না, কোন তথ্য জানা নেই। যতদূর মনে হচ্ছে, এ প্রশ্নের ভাষা যে চয়ন করেছে, সে একটা খুবই নীচু প্রকৃতির বেয়াদব। 
  
প্রশ্নঃ
 হানাফী মাযহাবের ইমাম আবু হানিফা (রহ) সহ অন্য ৩ মাযহাবের ইমামগণ মোট কতবার ঈদে-মিলাদুন্নাবী উৎযাপন করেছেন? 
উত্তরঃ
এ আবার কেমন প্রশ্ন?  
কুইজের শেষে বলা হয়েছে, কোরআন ও সহী হাদীসের রেফারেন্স ছাড়া উত্তর গ্রহণযোগ্য হবে না। তো এ প্রশ্নের উত্তর কোর’আন ও সহীহ হাদীসে পাওয়ার আশা করছিনা। কোন মস্তক বিকৃত সম্পন্ন পাগল ছাড়া কোন সুস্থ মানুষ এমন আশা করবেনা।  
আব্দুর রাযযাক বিন ইউসুফের একটি কথা মনে পড়ে গেল,
‘গাজাখুর কয় কি?’

প্রশ্নঃ
 ১৪০০ বছর আগে রসুল (ﷺ) এর জন্মদিবসের অনুষ্ঠানগুলোতে যে ধরনের খেজুর ও মিষ্টান্ন পরিবেশন করা হতো সেগুলোর নাম কি?
উত্তরঃ 
১৪০০ বছর আগে রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জন্ম দিবসে রোযা রেখে ইফতারের সময় যে খেজুর খেতেন তাঁর নাম কোর’আনের কোন আয়াতে পাওয়া যায় নি, কিয়ামত পর্যন্ত পাওয়া যাবেনা। সহীহ হাদীসে পাওয়া যায় নি, কিয়ামত পর্যন্ত পাওয়া যাবেনা। এটা একটা (আব্দুর রাযযাক বিন ইউসুফের ভাষায়) গাজাখুরি প্রশ্ন। তবে রোযা রাখার পর যে ইফতার করতে হয়, তা সহীহ হাদীসে রয়েছে। আবু দাঊদ, তিরমিযি সহ অন্যান্য হাদীস গ্রন্থ। তাছাড়া রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মিস্টান্ন পছন্দ করতেন- সহীহ হাদীসে তা প্রমাণিত। এখন যদি কেউ গেও ধরে বসে, মিষ্টান্নের নাম বল, তবে বুঝতে হবে ,এ লোকটার রক্তে বনী ইস্রাইলের বাদরামীর গন্ধ আছে ।       

প্রশ্নঃ
 রসুল (ﷺ) এর জন্মদিবস উপলক্ষে তিনি আমাদের কি কি না'ত শিক্ষা দিয়েছেন?
উত্তর 
وانت لما ودلدت أشرقت الارض وضائت بنورك الافق 
আব্বাস রাদিয়াল্লাহু আনহু আবৃত্তি করেছিলেন, আর রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তা শুনেছিলেন এবং নীরব সমর্থন দিয়েছিলেন। তাঁর নীরব সমর্থন এধরণের কাসীদাকে অনুমোদিত করেছে।  

প্রশ্নঃ 
 দরুদে ইব্রাহীম পড়লে ১০ বার আল্লাহর রহমত বর্ষিত হয়। ‘ইয়া নবী সালামু আলাইকা...’,‘সালাতুনিয়া রাসুল্লাহ...’, ‘মোস্তফা জানে রহমত পে লাখো সালাম...’ প্রভৃতি মানুষের বানানো দরুদ পড়লে কতটুকু রহমত বর্ষিত হবে?
প্রশ্নের মধ্যে জালিয়াতি ধরা পড়েছে। দরুদে ইব্রাহীম পড়লে ১০ বার আল্লাহর রহমত বর্ষিত হয়- এখানে ‘দরুদে ইব্রাহীম’ এর উল্লেখ কোথাও নেই। প্রশ্ন কর্তা রাসুলের মুহাব্বাতের দুশমনি করতে গিয়ে কী যা তা আবোল তাবোল প্রশ্ন করেছে । ভবিষ্যতে কুইজ টুইজ দিতে হলে ভাল লোকদের দিয়ে প্রশ্ন নির্বাচন করার পরামর্শ রইলো। 

প্রশ্নঃ
রসুল (ﷺ) এর জন্মস্থান মক্কা, ইন্তিকালের স্থান মদিনা। মক্কা মদিনায় কোন আওলাদে রসুল পাওয়া না গেলেও বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্থানে এত আওলাদে রসুল আসলে কোথা হতে?
উত্তরঃ 
কুইজের শেষে বলা হয়েছে, কোরআন ও সহী হাদীসের রেফারেন্স ছাড়া উত্তর গ্রহণযোগ্য হবে না। তো এ প্রশ্নের উত্তর কোর’আন ও সহীহ হাদীসে পাওয়ার আশা করছিনা। কোন মস্তক বিকৃত সম্পন্ন পাগল ছাড়া কোন সুস্থ মানুষ এমন আশা করবেনা।  
আব্দুর রাযযাক বিন ইউসুফের একটি কথা মনে পড়ে গেল,
‘গাজাখুর কয় কি?’ 

বিঃদ্রঃ 
ভাল করে খোঁজ খবর নিলে অবশ্যই মদীনা আওলাদে রাসুলদের ঠিকানা পাবেন।  

عن زيد بن ارقم رضى الله تعالى عنه قال قام رسول الله صلى الله عليه وسلم يوما فينا خطيبا بماء يدعى خما بين مكة والمدينة فحمد الله واثنى عليه ووعظ وذكر ثم قال اما بعد الا ايها الناس انما انا بشر يوشك ان ياتينى رسول ربى فاجيب وانا تارك فيكم الثقلين اولهما كتاب الله فيه الهدى والنور فخذوا بكتاب الله واستمسكوا به فحث على كتاب الله ورغب فيه ثم قال واهل بيتى اذكركم الله فى اهل بيتى اذكركم الله فى اهل بيتى.
অর্থ: "হযরত যায়িদ ইবনে আরকাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু বলেন, একবার রসূলুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মক্কা শরীফ ও মদীনা শরীফ-এর মধ্যবর্তী "খোম" নামক পানির নালার নিকট দাঁড়িয়ে আমাদেরকে খুৎবা দান করলেন। প্রথমে আল্লাহ পাক উনার হামদ ও ছানা বর্ণনা করলেন, এরপর ওয়ায ও নছীহত করলেন, অতঃপর বললেন, সাবধান! হে লোক সকল! নিশ্চয়ই আমি একজন বাশার, অচিরেই আমার নিকট আল্লাহ পাক উনার দূত (হযরত মালাকুল মউত আলাইহিস্ সালাম) আসবে, তখন আমি আমার রব তায়ালার আহবানে সাড়া দিব। আমি তোমাদের মাঝে দু’টি মূল্যবান সম্পদ রেখে যাচ্ছি। তন্মধ্যে প্রথমটি হল, আল্লাহ পাক উনার কিতাব, এর মধ্যে রয়েছে হিদায়েত ও নূর। অতএব, তোমরা আল্লাহ পাক উনার কিতাবকে খুব মজবুতভাবে আঁকড়ে ধর এবং দৃঢ়তার সাথে তার বিধি-বিধান মেনে চল। (বর্ণনাকারী বলেন,) আল্লাহ পাক উনার কিতাবের নিদের্শাবলী কঠোরভাবে মেনে চলার জন্য তিনি খুব বেশী উদ্বুদ্ধ ও উৎসাহিত করলেন। অতঃপর বললেন, আর দ্বিতীয়টি হলো; আমার আহলে বাইত। আমি তোমাদেরকে আমার আহলে বাইত সম্পর্কে আল্লাহ পাক উনার তরফ থেকে বিশেষ নছীহত করছি। আমি তোমাদেরকে আমার আহলে বাইত সম্পর্কে আল্লাহ পাক উনার তরফ থেকে বিশেষ নছীহত করছি।" (মুসলিম শরীফ)
.
.
عن جابر رضى الله تعالى عنه قال رايت رسول الله صلى الله عليه وسلم فى حجته يوم عرفة وهو على ناقته القصواء يخطب فسمعته يقول يا ايها الناس انى تركت فيكم ما ان اخذتم به لن تضلوا كتاب الله وعترتى اهل بيتى.
অর্থ: "হযরত জাবির রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু বলেন, আমি রসূলুল্লাহ ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনাকে দেখেছি, তিনি (বিদায়) হজ্জে আরাফাতের দিন তাঁর "কাসওয়া" নামক উষ্ট্রীর উপর সওয়ার অবস্থায় খুৎবা দান করছেন। আমি শুনেছি, তিনি খুৎবায় বলেছেন, হে লোক সকল! আমি তোমাদের মাঝে এমন জিনিস রেখে যাচ্ছি, তোমরা যদি তাকে শক্তভাবে ধরে রাখ, তবে কখনও গোমরাহ হবেনা। তা হলো আল্লাহ পাক উনার কিতাব ও আমার ইতরত বা আহলে বাইত।" (তিরমিযী শরীফ)
এই হাদিস থেকে বুঝা যাচ্ছে আহলে বায়াত রসূলের বংশধরদের অস্বীকার কারী আসলে এই হাদিস গুলি অস্বীকার করে।

প্রশ্নঃ
 ‘ঈদে মিলাদুন্নাবী’ -সকল ঈদের সেরা ঈদ এর সালাত কয় রাক’আত ও কয় তাক্ববীরের সহীত আদায় করতে হয়?
উত্তরঃ
কিছু প্রশ্নের জবাব প্রশ্ন দিয়ে করতে হয়। তো এ প্রশ্নের জবাবে প্রশ্ন হলো, আরাফাহ এর দিনকে ঈদের দিন বলা হয়েছে। এ ঈদের সালাত কয় রাকাত? কয় তাকবীরের সাথে আদায় করতে হয়? 
এ প্রশ্নের যে জবাব সেই প্রশ্নের সেই জবাব। 

প্রশ্নঃ
 কয়েকটি বিদ’আত- হাসানা এর নাম লিখুন। বিদ‘আত হলেও এগুলো করে সাওয়াব পাওয়া যাবে, এই বক্তব্য এর পক্ষে কোরআন হাদীছের দলিল পেশ করুন।
.উত্তরঃ 
অনেকই তো আছে। তন্মধ্যে একটি হচ্ছে যেমন, কোন শায়েখের নাম উচ্চারণ করে তাঁর জন্য ‘হাফিযাহুল্লাহ’ বলে দোয়া করা। এখানে হাফিযাহুল্লাহ নামক নব আবিষ্কৃত দোয়া করলে ছওয়াব পাওয়া যাবে- এটি যে হাদীস দ্বারা প্রমাণিত হবে, সে হাদীস দ্বারা বেদ’আতে হাসানার ছওয়াব প্রমাণিত হবে।   

(কুইজের নীচের বিশেষ দ্রষ্টব্যটি দেয়া হলোঃ) 
বিশেষ দ্রষ্টব্য:
----------
-কোরআন ও সহী হাদীসের রেফারেন্স ছাড়া উত্তর গ্রহণযোগ্য হবে না।
-জাল/জঈফ হাদীছ দিয়ে উত্তর প্রদান করলে নাম্বার কর্তন করা হবে।
-A+ প্রাপ্ত সকলে জন্য থাকবে মিলুন্নাবীর বিশেষ গিফট বক্স!
-সঠিক ইলম অর্জনকারীদের পুরস্কার জমা থাকবে। পুরষ্কার পাবেন ইহকালে, পরকালেও
Sign In or Register to comment.
|Donate|Shifakhana|Board|All Sunni Site|EarnMB.in|