بسم الله الرحمن الرحيم
اللَّهُمَّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَعَلَى آلِ مُحَمَّدٍ
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ Sunni Whatsapp Group Click : আমাদের সুন্নি বাংলা WhatsApp গ্রুপে যুক্ত হোন,আমাদের মুফতি হুজুরগণ আপনার ইসলামিক সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দিবেন ইন শা আল্লাহ,জয়েন করতে ক্লিক করেন Sunni Bangla Whatsapp group আর Sunni Bangla facebook group এবং Sunni Bangla facebook group মাসলাক এ আলা হজরত জিন্দাবাদ আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত জিন্দা বাদ ৭৩ফিরকা ১টি হক পথে ।নবিﷺ এর প্রেমই ঈমান।ফরজ সুন্নাত তাসাউফ সূফীবাদ নফল ইবাদতের আরকান আহকাম সমুহ মাস'আলা মাসায়েল ইত্যাদি জানতে পারবেন।নবিﷺ সাহাবাرضي الله عنه ওলি গণের জীবনি ও অমুল্য বাণী জানতে পারবেন।মুসলিম জগতের সকল খবর ও ম্যাগাজিন পাবেন এখানেহাদিস শরীফ, কুর'আন শরীফ , ইজমা কিয়াস সম্বলিত বিশ্লেষণ, বাতিলদের মুখোশ উম্মচন করে প্রমাণ সহ দলীল ভিত্তিক আলোচনা ।জানতে পারবেন হক পথে কারা আর বাতিল পথে কারা জা'আল হক। বাংলাদেশ ও ভারতের সুন্নি আলিমদের বাংলায় নাত গজল ওয়াজ নসিহত অডিও ভিডিও ডাউনলোড করুন এখান থেকে অনলাইনে সুন্নি টিভি Live দেখতে আর রেডিও Live শুনতে পাবেন। প্রচুর সুন্নি বাংলা কিতাব ডাউনলোড করুন এখান থেকে।সুন্নি ইসলামিক কম্পিঊটার এপ্লিকেশন এন্ড্রইড এপ্স পাবেন এখানে। প্রতিদিন ভিজিট করুন প্রতিদিন নতুন বিষয় আপডেট পেতে ।ভিজিট করার জন্য ধন্যবাদ জাজাকাল্লাহু খায়ের ।

রমজানের চাঁদকে বরণ করার দোয়া

রমজানের চাঁদকে বরণ করার দোয়া



'আল্লাহুম্মা আহিল্লাহু আলাইনা বিল আমনি ওয়াল ঈমান, ওয়াস সালামাতি ওয়াল ইসলাম, রাবি্ব ওয়া রাব্বুকাল্লাহ'। অর্থ : ইয়া আল্লাহ! এ চাঁদকে আমাদের ওপর উদিত করো শান্তি ও ঈমান এবং নিরাপত্তা ও ইসলাম সহকারে। (হে চাঁদ!) আমার ও তোমার প্রতিপালক আল্লাহ। এ দোয়ায় ইঙ্গিতে বলা হয়েছে, আল্লাহর প্রতি গভীর বিশ্বাস_ ঈমানের মধ্যেই নিহিত আছে শান্তি। আর জীবনের নিরাপত্তা নির্ভর করে ইসলাম বা আল্লাহর দ্বীনের জন্য নিজেকে সম্পূর্ণ সঁপে দেয়ার ওপর। ইসলামে দোয়া মানে নিছক প্রার্থনা বা কোনো মন্ত্র জপ করা নয়। বরং অন্তরের গভীর বিশ্বাস ও চেতনার বাচনিক উচ্চারণ হলো দোয়া, যা ব্যক্তির কর্মশক্তিকে জোরদার করে, তার সঙ্গে আল্লাহর সাহায্যের সংযোগ ঘটায়। নতুন চাঁদ দেখার দোয়া পাঠের মাধ্যমেও মোমিন বান্দা আল্লাহ ও ইসলামের প্রতি তার বিশ্বাস, চেতনা ও সম্পর্কের প্রকাশ ঘটায়। এর মাধ্যমে নতুন মাস ও বছরকে স্বাগত জানায়, তার সৌভাগ্যকে বরণ করে নেয় নিজের মন, জীবন ও সমাজের জন্য। আমরা দিনের বেলা সূর্যের দিকে তাকাতে পারি না, সূর্যের প্রখর তাপে চোখ ঝলসে যায়। সূর্যগ্রহণ হলে সূর্যের তাপ ও কিরণ থাকে না, তবুও খালি চোখে সূর্যের দিকে তাকান মানা। চোখ অন্ধ হয়ে যাওয়ার সমূহ সম্ভাবনা। জ্যোৎস্না রাতে চাঁদের রূপসুধা পান করে বিমুগ্ধ হয় না, এমন মানুষ একজনও খুঁজে পাওয়া যায় না। তার মানে, মানব জীবনে সূর্য ও চাঁদের দিকে তাকিয়ে দেখার প্রভাব অনস্বীকার্য। এ যুক্তিতে নতুন চাঁদ দেখার মাঝেও বরকত আছে, নতুন দিনের সৌভাগ্যের পরশ গায়ে মাখার যোগ আছে। এ কারণেই প্রিয় নবী (সাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) নতুন চাঁদকে বরণ করতেন, স্বাগত জানাতেন। তালহা ইবনে ওবায়দুল্লাহ (রাদিয়াল্লাহু আনহু) এর বর্ণনায় নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নতুন চাঁদ দেখে বলতেন, ইয়া আল্লাহ! এ চাঁদকে আমাদের ওপর উদিত করো শান্তি, ঈমান এবং নিরাপত্তা ও ইসলাম সহকারে। (হে চাঁদ!) আমার ও তোমার প্রতিপালক আল্লাহ। বিকাশ, সমৃদ্ধি ও কল্যাণের নতুন চাঁদ। (তিরমিজি : ৩৪৪৭)।


নতুন চাঁদ দেখে এ দোয়া পাঠ সুন্নতের অনুসরণ ও আল্লাহর ইবাদত। বছরের অন্যান্য মাসের তুলনায় রমজান অনেক মহিমান্বিত। সীমাহীন রহমত, বরকত ও সৌভাগ্য নিয়ে আসে দুনিয়াবাসীর জন্য। রমজানের আগমনী প্রতীক চাঁদ দেখার মধ্যেও সেই পরম সৌভাগ্যের হাতছানি থাকে, রহমতের পরশ থাকে।

*নতুন চাঁদ দেখার দোয়া :-বর্তমান প্রযুক্তির যুগে নিজে চোখে চাঁদ দেখার রীতি শেষ হয়ে গেছে, অথচ এই চাঁদ দেখার সাথে সম্পর্কিত রয়েছে রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর একটু অন্যতম সুন্নাত।আর তাহলো চাঁদ দেখার দুয়া। আসুন আমরা থেকেই সংকল্প করি রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর এই সুন্নাতকে জীবিত করার। اللهم أهله علينا بالأمن و الإيمان و السلامة و الإسلام ربى و ربك الله “আল্লাহুম্মা আহিল্লাহু আলাইনা বিলআমনি ওয়াল ঈমানি ওয়াস সালামাতি ওয়াল ইসলামি রাব্বী ওয়া রাব্বুকাল্লাহ” অর্থ-হে আল্লাহ ঐ চাঁদকে আমাদের উপর উদিত কর নিরাপত্তা, ঈমান ও ইসলামের শান্তির স্বার্থে(হে চাঁদ) আমার ও তোমার প্রতিপালক আল্লাহ। [সহিহ ইবনে হিব্বান হা/ ৮৮৮, হাদীস সহিহ]

Comments

Sign In or Register to comment.
|Donate|Shifakhana|Urdu/Hindi|All Sunni Site|Technology|