بسم الله الرحمن الرحيم
اللَّهُمَّ صَلِّ عَلَى مُحَمَّدٍ وَعَلَى آلِ مُحَمَّدٍ
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ Sunni Whatsapp Group Click : আমাদের সুন্নি বাংলা WhatsApp গ্রুপে যুক্ত হোন,আমাদের মুফতি হুজুরগণ আপনার ইসলামিক সমস্ত প্রশ্নের উত্তর দিবেন ইন শা আল্লাহ,জয়েন করতে ক্লিক করেন Sunni Bangla Whatsapp group আর Sunni Bangla facebook group এবং Sunni Bangla facebook group মাসলাক এ আলা হজরত জিন্দাবাদ আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত জিন্দা বাদ ৭৩ফিরকা ১টি হক পথে ।নবিﷺ এর প্রেমই ঈমান।ফরজ সুন্নাত তাসাউফ সূফীবাদ নফল ইবাদতের আরকান আহকাম সমুহ মাস'আলা মাসায়েল ইত্যাদি জানতে পারবেন।নবিﷺ সাহাবাرضي الله عنه ওলি গণের জীবনি ও অমুল্য বাণী জানতে পারবেন।মুসলিম জগতের সকল খবর ও ম্যাগাজিন পাবেন এখানেহাদিস শরীফ, কুর'আন শরীফ , ইজমা কিয়াস সম্বলিত বিশ্লেষণ, বাতিলদের মুখোশ উম্মচন করে প্রমাণ সহ দলীল ভিত্তিক আলোচনা ।জানতে পারবেন হক পথে কারা আর বাতিল পথে কারা জা'আল হক। বাংলাদেশ ও ভারতের সুন্নি আলিমদের বাংলায় নাত গজল ওয়াজ নসিহত অডিও ভিডিও ডাউনলোড করুন এখান থেকে অনলাইনে সুন্নি টিভি Live দেখতে আর রেডিও Live শুনতে পাবেন। প্রচুর সুন্নি বাংলা কিতাব ডাউনলোড করুন এখান থেকে।সুন্নি ইসলামিক কম্পিঊটার এপ্লিকেশন এন্ড্রইড এপ্স পাবেন এখানে। প্রতিদিন ভিজিট করুন প্রতিদিন নতুন বিষয় আপডেট পেতে ।ভিজিট করার জন্য ধন্যবাদ জাজাকাল্লাহু খায়ের ।
রোযার নিয়ত নিয়ে ওয়াহাবীদের কটাক্ষ ও তার দাঁত ভাঙা জবাব:

রোযার নিয়ত নিয়ে ওয়াহাবীদের কটাক্ষ ও তার দাঁত ভাঙা জবাব:

edited May 10 in Ja-al-haq


🌹🌹7⃣8⃣6⃣/9⃣ 2⃣ 🌹🌹 
*রোযার আরবী নিয়াত মুখে উচ্চারণ করা নিয়ে, নকল মাদানী সালাফী মওলবীদের কটাক্ষের, দাঁত ভাঙ্গা লিখিত জবাব দিলেন - ফাক্বীহে বাঙ্গাল*।                                 
👉 সারা পৃথিবীর সমস্ত সুন্নী হানাফীদের মতে নিয়াত বলতে, হৃদয়ের সংকল্প বা ইচ্ছাকেই বুঝায় ৷ সেটাকেই মুখে প্রকাশ করা মুস্তাহাব ও মুস্তাহাসান ৷ যেন মোমিনের মুখের ও বুকের কথায় ও কর্মে মিল থাকে ৷ রোযার ক্ষেত্রেও সেটাই প্রযোজ্য ৷ রোযার নিয়াত এই ভাবে মুখে বলা হয় - *"নাওয়াইতুআন আসুমা গাদাম মিন শাহরে রমযানা হাযা"* ৷ যার বাংলা অর্থ - *"আমি নিয়াত করেছি যে রোযা রাখবো আগামীকাল এই রমযান মাসের"* ৷ যেহেতু সাহরীর সময় থেকে সামনের মাগরিবের পূর্ব পর্যন্ত,আরবী তারিখ অনুযায়ী, আজ হচ্ছে আজ । সেহেতু রোযার নিয়াতে আগামীকাল শব্দটি থাকবে কেন ? আসলে কাল হবে, আসন্ন  মাগরিব বাদে ৷ এই আপত্তির ঝড় তুলে সোশাল মিডিয়ায়, তোলপাড় শুরু করে দিয়েছে, কিছু নকল মাদানী ওয়াহাবী, সালাফী ও লামাযহাবী কাট মোল্লার দলেরা ৷  এমনকি রোযার এই আরবী নিয়াতকে তারা হাস্যকরও বলেছে ৷ তাদের ধারনা যে, সুন্নী হানাফী আলেমদের নিকট এর কোনো উত্তর নাই ৷ তামাম পৃথিবীর সমস্ত ওয়াহাবী, সালাফী ও লামাযহাবী নকল মাদানী মোল্লারা কান খুলে শোন, গাদান বা কাল শব্দটার অর্থ শুধু সাহরী থেকে পরের দিনের মাগরিব পর্যন্ত সিমাবদ্ধ নয় ৷ বরং সাহরীর পর থেকে ক্বিয়ামতের দিন পর্যন্ত এই গাদান বা কাল এ শামিল থাকতে পারে ৷ এটা স্থান কাল পাত্র বিশেষে বুঝা যাবে। 
👉প্রমান: - *ক্বোরআন শরীফ সুরা* - আল হাশর, শেষ রুকু, আয়াত নং - 18 এর মধ্যে ক্বেয়ামতের দিন কেও গাদান বা কাল বলা হয়েছে।               
👉 মাদ্রাসার ছাত্রদেরকে বলা হয় - "আজকে তালাবা কালকে ওলামা "।
👉 শিক্ষিত সমাজে এ কথা ব্যাপক ভাবে চালু আছে যে, আজকের তরুণ কালকের ভবিষ্যত । এর অর্থ মোটেই এটা নয়, যে এরা শুধু আগামী কালকের জন্যই ।এরা পরশু দিনের জন্য নয় ৷ বুঝা গেল এখানে গাদান বা কাল বলতে ভবিষ্যত বা পরবর্তী কালকে বুঝানো হচ্ছে ৷ আর তারই একটা অংশ হচ্ছে সাহরী থেকে মগরিবের পূর্ব পর্যন্ত ৷ অর্থাৎ - রোযার নিয়াতে কূল বা সমস্ত বলে জুয বা অংশ বুঝানো হয়েছে । একে আরবী ভাষায় বলা হয় তাসমিইয়াতুল জুয বে ইসমিল কূল ৷ যেটা, লাল রুমাল পাটি ওয়াহাবী মওলবীদের 
মাথায় মোটেই ঢুকেনি ৷ অতএব রোযার নিয়াতে গাদান বা কাল শব্দটি থাকাতে কোন রকম অসুবিধা নাই ৷ এ ব্যাপারে গোটা দুনিয়ার সমস্ত ওয়াহাবী, সালাফী, লামাযহাবীদেরকে আমার প্রকাশ্য চ্যালেঞ্জ রইলো ৷ 
ইতি:- ০৯/০৫/২০১৯              
আরয গুযার - *ফাক্বীহে বাঙ্গাল মুনাযিরে আহলে সুন্নাত শেরে রেযা আলহাজ মুফতী মোঃ আলিমুদ্দিন রেজবী মাযহারী সুন্নী হানাফী, (জঙ্গীপুর, মুর্শিদাবাদ, পঃ বঃ, ভারত)* মোঃ +919434164314

Comments

Sign In or Register to comment.
|Donate|Shifakhana|Urdu/Hindi|All Sunni Site|Technology|